বাক্য কাকে বলে? বাক্য কয় প্রকার ও কি কি?

বাক্য কাকে বলে: বাংলা ব্যাকরণ খুবই গুরত্বপূর্ণ একটি বিষয়। ব্যাকরণ না সঠিকভাবে জানা থাকলে সঠিক ভাষার ব্যবহার খুবই কঠিন হয়ে দাঁড়াবে। একটি মনের ভাব প্রকাশ করার জন্য বা কোনো কিছু লেখার বা বলার জন্যে প্রয়োজন হয় শব্দের। আর কিছু শব্দ একত্রিত হয়ে তৈরি হয় বাক্য। এই আর্টিকেল এ আপনাদের সাথে বাক্য সম্পর্কে সম্পূর্ণ তথ্য শেয়ার করার চেষ্টা করবো। বাক্য কাকে বলে, বাক্য কয় প্রকার ও কি কি প্রত্যেকটি উদাহরণসহ। তাহলে চলুন প্রথমে জেনে নেওয়া যাক বাক্য কাকে বলে।

বাক্য কাকে বলে?

বাক্যটি একটি ব্যাকরণগত নির্মাণ যা ভাষার মৌলিক একক গঠন করে। এটি একটি বিষয় এবং একটি পূর্বাভাস নিয়ে গঠিত এবং এটি একটি সম্পূর্ণ চিন্তা প্রকাশ করতে কাজ করে। ইংরেজিতে, বেশিরভাগ বাক্য একটি বিষয় এবং একটি ক্রিয়া দিয়ে তৈরি করা হয়, যেমন “আমি একটি কাগজ লিখছি।”

যাইহোক, অধীনস্থ এবং যৌগিক বাক্য সহ অন্যান্য ধরণের বাক্য রয়েছে। একটি অধীনস্থ বাক্যে একটি স্বাধীন ধারা এবং এক বা একাধিক নির্ভরশীল ধারা থাকে, যখন একটি যৌগিক বাক্যে দুটি বা ততোধিক স্বাধীন ধারা থাকে।

এক কথায় বাক্য হল ভাষার মৌলিক একক। এটি এক বা একাধিক শব্দের সমন্বয়ে গঠিত এবং একটি সম্পূর্ণ চিন্তা প্রকাশ করে। একটি বাক্যের প্রতিটি শব্দের একটি নির্দিষ্ট ফাংশন রয়েছে, যা কোনো কথার অংশ হিসাবে শ্রেণীবদ্ধ করা যেতে পারে।

একটি সম্পূর্ণ কথা কিছু অংশ দিয়ে তৈরি হয়: বিশেষ্য, ক্রিয়া, সর্বনাম, বিশেষণ, ক্রিয়াবিশেষণ, অব্যয়, সংযোগ, ইন্টারজেকশন এবং নিবন্ধ। ভালো লেখার জন্য কথার প্রতিটি অংশের স্বতন্ত্র কাজ বোঝা অপরিহার্য।

বাক্য কয় প্রকার ও কি কি?

গঠনগত দিক থেকে বাক্য সাধারনত ৪ (চার) প্রকার।

  • সরল বাক্য
  • যৌগিক বাক্য
  • জটিল বাক্য
  • মিশ্র বাক্য

আবার অর্থগত দিক থেকে বাক্য ৭ (সাত) প্রকার। এগুলি হল

  • নির্দেশনামূলক
  • প্রশ্ন
  • বিস্ময়
  • আদেশ
  • দাবী
  • অনুমানমূলক
  • অপরিহার্য

নির্দেশনামূলক: একটি বাক্য তখনই নির্দেশনামূলক হয় যখন এটি একটি সত্য বা মতামত জানায়। যেমন, ওখানে যাওয়া নিষিদ্ধ করা হলো।

প্রশ্ন: যখন বাক্যটি একটি প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করে তখন এটি জিজ্ঞাসাবাদমূলক। যেমন, তোমার বাড়ি কোথায়?

বিস্ময়: তখন কোনো বাক্য বিস্ময়কর হয় যখন এটি শক্তিশালী আবেগ দেখায়। যেমন, সত্যি ওখানে ওটা ছিল?

আদেশ: তখন কোনো বাক্য বাধ্যতামূলক হয় যখন এটি একটি আদেশ দেয়। যেমন, ওখানে একদম যাবেনা।

দাবী: কোনো বাক্য তখনই দাবীমূলক হয় যখন এটি একটি বিবৃতি দেয়। যেমন, এই ফোনটি আমার।

অনুমানমূলক: কোনো বাক্য তখনই অনুমানমূলক হয় যখন এটি এমন একটি পরিস্থিতি উপস্থাপন করে যা সত্য হতে পারে বা নাও হতে পারে। যেমন, সুমন কাল স্কুলে আসতেও পারে আবার নাও আসতে পারে।

অপরিহার্য: কোনো বাক্য তখনই অপরিহার্যমূলক হয় যখন কোনো জরুরী বা দরকারি বিবৃতি দেয়। যেমন, আমাকে আজ খেলতে যেতেই হবে।

সরল বাক্য কাকে বলে?

একটি সরল বাক্যে একটি সাবজেক্ট এবং একটি ক্রিয়া থাকে। সাবজেক্ট হল ক্রিয়ার অভিনেতা, যা আমাদেরকে বলে কি বা কারা ক্রিয়া করছে। যেমন: সুমন হাসছে। এই বাক্যে, “সুমন” হল সাবজেক্ট এবং “হাসছে” হল ক্রিয়া।

যৌগিক বাক্য কাকে বলে?

একটি যৌগিক বাক্য দুটি বা ততোধিক সরল বাক্য দ্বারা গঠিত যা একটি সংযোগ দ্বারা সংযুক্ত। যখন দুটি বা ততোধিক সাধারণ বাক্য ছোট হয়, তখন একটি কমা ব্যবহার করা যেতে পারে তাদের একসাথে যুক্ত করতে। যখন সাধারণ বাক্যগুলি দীর্ঘ হয়, একটি সেমিকোলন ব্যবহার করা উচিত।

যেমন, আমি দৌড়াতে ভালবাসি এবং আমি নাচতে ভালবাসি, কিন্তু আমি একটিতে খুব একটা ভালো নই।

জটিল বাক্য কাকে বলে?

একটি জটিল বাক্য হল একটি বাক্য যাতে এক বা একাধিক অধস্তন ধারা থাকে। একটি অধস্তন ধারা হল শব্দের একটি গোষ্ঠী যা নিজে থেকে একটি সম্পূর্ণ বাক্য গঠন করে না এবং ব্যাকরণগতভাবে সঠিক হওয়ার জন্য একটি স্বাধীন ধারার সাথে সংযুক্ত থাকতে হবে। অধস্তন ধারাগুলি সাধারণত একটি অধস্তন সংযোগ (যেমন, কারণ, কখন, যদি, হিসাবে, যদিও) বা একটি আপেক্ষিক সর্বনাম (যেমন, কে, যা, যে) দ্বারা প্রবর্তিত হয়।

জটিল বাক্যগুলি অভিব্যক্তির স্বচ্ছতার জন্য সহায়ক হতে পারে, তবে সেগুলি সঠিকভাবে নির্মাণ করাও কঠিন হতে পারে। জটিল বাক্য লেখার সময়, প্রতিটি ধারা সঠিকভাবে বিরামচিহ্নিত হয়েছে এবং একটি স্পষ্ট সম্পর্ক রয়েছে তা নিশ্চিত করা গুরুত্বপূর্ণ।

যেমন, আমি যখন আমার ফাইনাল পরীক্ষার জন্য পড়ছিলাম, তখন আমি আমার মায়ের কাছ থেকে একটি কল পেয়েছি।

মিশ্র বাক্য কাকে বলে?

একটি মিশ্র বাক্য হল একটি বাক্য যাতে কমপক্ষে একটি স্বাধীন ধারা এবং একটি নির্ভরশীল ধারা থাকে। স্বাধীন ধারাটি একটি বাক্য হিসাবে নিজের উপর দাঁড়াতে পারে, যখন নির্ভরশীল ধারাটি পারে না। একটি পাঠ্যের সামগ্রিক গঠন বোঝার জন্য ধারাগুলির মধ্যে সম্পর্ক সনাক্ত করা প্রায়শই গুরুত্বপূর্ণ। মিশ্র বাক্যগুলি সাধারণত একাডেমিক লেখায় পাওয়া যায়, যেখানে লেখকরা জটিল বিষয়গুলির স্পষ্ট এবং সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা প্রদানের লক্ষ্য রাখেন।

যেমন, আমি দোকানে যাচ্ছি, আপনি এখানে থাকুন।

এই AnswerChamp সাইটটি প্রতিদিন ভিজিট করবেন এই ধরনের সুন্দর সুন্দর তথ্য বাংলায় পাওয়ার জন্য। ধন্যবাদ।।

Sayan Ghosal

হাই, আমি সায়ন, AnswerChamp এর প্রতিষ্ঠাতা। ভালো লাগার পেশা এবং নেশা হলো ব্লগিং। আমি প্রযুক্তি বিষয়ে একটু বেশি আগ্রহী। তাই প্রযুক্তি বিষয়ক নতুন নতুন তথ্য জানতে এবং শেয়ার করতে খুব ভালো লাগে।
View All Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.